জেএসইউএস- বাংলাবাজার শিশু শিখন কেন্দ্র পরিদর্শনে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পিইডিপি-৪), অতিরিক্ত সচিব দিলীপ কুমার বণিক

শিশু শিক্ষার্থীদের স্বত:স্ফুর্ত নাচগান কবিতাপাঠের অংশগ্রহণ মতবিনিময়

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো এবং ড্যামের সহযোগিতায় পরিচালিত যুগান্তর সমাজ উন্নয়ন সংস্থা (জেএসইউএস) কর্তৃক বাস্তবায়িত আউট অব স্কুল চিলড্রেন প্রকল্পের নগরীর ২ নং জালালাদস্থ বাংলাবাজার শিশুশিখন কেন্দ্র পরিদর্শনকালে আজ ( ২৬ নভেম্বর,২০২২) প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক(পিইডিপি-৪) অতিরিক্ত সচিব জনাব দিলীপ কুমার বণিক শিশুশিক্ষার্থীদের নাচ গানের তালে তালে বিনোদনমূলক শিক্ষা কর্মসূচীতে সরাসরি অংশগ্রহণ করেন। তিনি শিশুশিক্ষার্থীদের সাথে নানা বিষয়ে খোলামেলা ও স্বতঃস্ফুর্ত মতবিনিময়কালে সন্তোষ প্রকাশ করেন। আগামীতে ঝরে পড়া শিশু শিক্ষার্থীদের শিক্ষার বিষয়টিকে গুরুত্বের সাথে বিবেচনার ব্যাপারে মতামত ব্যক্ত করেন। শিশুশিখন কেন্দ্র পরিদর্শনের প্রাক্কালে বাংলা বাজার এলাকায় পৌঁছুলে যুগান্তর সমাজ উন্নয়ন সংস্থার পক্ষ থেকে অতিরিক্ত মহাপরিচালক মহোদয়কে অভ্যর্থনা জানানা সংস্থার ব্যবস্থাপনা উপদেষ্টা কবি প্রাবন্ধিক সাঈদুল আরেফীন, নির্বাহী পরিচালক ইয়াসমীন পারভীন।

সকাল ৯.৩০টায় বাংলাবাজার শিশু শিখন কেন্দ্রটি পরিদর্শনের সাথে সাথে ৩০ জন শিশুশিক্ষার্থীদের চৌকষ দল নাচ- গান, তালি তুড়ির মাধ্যমে প্রধান অতিথি দিলীপ কুমার বণিককে স্বাগত জানান । শিশুশিক্ষার্থীরা একে একে তাদের পাঠ্যবই থেকে নেচে গেয়ে আবৃত্তি করে শোনান কবিগুরুর আমাদের ছোট নদী, বিদ্রোহী কবির সকাল বেলার পাখি, আ.ন.ম বজলুর রশিদের আমাদের দেশ কবিতাগুলো। আমরা করবো জয় সঙ্গীতে নাচে বিমুগ্ধ করে রাখেন শিশুরা। এ সময় প্রধান অতিথির সাথে অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনএফই সহকারি পরিচালক জুলফিকার আমীন, সহকারি জেলা প্রাথমি শিক্ষা কর্মকর্তা রিন্টু বড়–য়া, জেএসইউএস ব্যবস্থাপনা উপদেষ্টা সাঈদুল আরেফীন, জেএসইউএস নির্বাহী পরিচালক ইয়াসমীন পারভীন, ড্যামের এসপিএম শহীদুল হক মোল্লা, ড্যামের ডিপিএম (অতিরিক্ত দায়িত্ব) জিয়ান আহমেদ, জেএসইউএস প্রোগ্রাম ম্যানেজার মুনজিলুর রহমান, ড্যাম এডিপি ইসমাইল হোসেন, জেএসইউএস পিএস জাফরীন চৌধুরী, নাসরিন সুলতানা, সাবরিন ফারহানা, শিখন কেন্দ্রের শিক্ষক নাসিমা আক্তার প্রমূখ। উল্লেখ্য বর্তমানে যুগান্তর সমাজ উন্নয়ন সংস্থা ( জেএসইউএস) এর উদ্যোগে নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে প্রায় ৪০টি কেন্দ্রে ৮০ শিশুশিখন কেন্দ্রে ১২০০ ঝরে পড়া শিশুশিক্ষার্থীকে নিয়মিত পাঠদান কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।